Blog

Print On Demand (POD) সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন (পার্ট-১)

Affiliate
Print On Demand

Print On Demand (POD) সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন (পার্ট-১)

এই পোস্টে Print On Demand (POD) সম্পর্কে আপনাদের সম্পূর্ণ একটা বেসিক ধারনা দেয়ার চেষ্টা করব ইন-শা-আল্লাহ্‌। শুরুতেই বলে নিচ্ছি পোস্টটি বিগেনারদের জন্য, যারা এই প্ল্যাটফর্ম এ একেবারেই নতুন বা যাদের মোটামুটি POD সম্পর্কে ধারনা বা ইন্টারেস্ট আছে তারা খুব মনোযোগ সহকারে সম্পূর্ণ পোস্টটি পরবেন। আশাকরি পোস্টটি পড়ার পর POD সম্পর্কে আপনি একটি সঠিক গাইডলাইন পেয়ে যাবেন। আর একটি কথা বলে নেই এই সেক্টরের এক্সপার্ট ভাইদের প্রতি অনুরোধ থাকবে পোস্টে কোন ভুল ত্রুটি থাকলে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখার জন্য এবং আপনার মুল্যবান কমেন্ট এর মধ্যমে তা আমাদের জানানোর জন্য। চলুন আর কথা না বাড়িয়ে শুরু করা যাকঃ-

Print On Demand (POD) কি?

Print On Demand (POD) হচ্ছে একধরনের ই-কমার্স বিজনেস যেখানে আপনি খুব সহজেই আপনার নিজের ডিজাইন দিয়ে বিভিন্ন রকমের মার্চেন্ডাইজ যেমনঃ টিশার্ট, হুডি, মগ , পোস্টার , স্টিকার এবং আরো অনেক কিছু অনলাইনে সেল করতে পারবেন অর্ডার বেসিসে।

এর মানে হচ্ছে এই বিজনেসে বাল্ক প্রডাক্ট কেনা বা সেগুলো স্টক করার কোন ঝামেলা নেই। কেননা আপনি যে মার্কেটপ্লেস এ কাজ করবেন তারাই প্রোডাক্ট থেকে শুরু করে প্রিন্টিং, প্যাকেজিং, ডেলিভারি ও কাস্টমার কেয়ার সবধরনের সাপোর্ট তাদের সেলারদের দিয়ে থাকে। আপনার কাজ শুধু ডিজাইন ও মার্কেটিং করে সেল জেনারেট করা এবং সেখান থেকে নিজের প্রফিট তুলে আনা।

POD শিখতে নিচের স্টেপগুলো ফলো করুন:

1. Mindset

2. Design

3. Partner

4. Traffic

5. Scaling

এখন আপনাদের স্টেপগুলো সম্পর্কে একটা সংক্ষিপ্ত ধারণা দেয়ার চেষ্টা করব, চলুন শুরু করা যাকঃ

1. Mindset:

POD বিজনেসে মাইন্ডসেট খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটা অংশ এবং মাইন্ডসেট এর ২ টা দিক রয়েছে। সর্বপ্রথম আপনার নিজের মাইন্ডকে সেটাপ করতে হবে যে আপনি এই বিজনেসটি করতে পারবেন কি পারবেন না। যদি POD সম্পর্কে বিস্তারিত জানার আপনার মনে হয় বিজনেসটি আপনার জন্য পারফেক্ট এবং আপনি চেষ্টা করলে করতে পারবেন তাহলে এর পর আপনাকে আপনার কাস্টমার এর মাইন্ডসেট/বিহেভিওর সম্পর্কে খুব ভালোভাবে জানতে হবে এবং প্রতিনিয়ত মার্কেট রিসার্চ করতে হবে।

আপনি যদি নিজেকে এবং আপনার কাস্টমার সম্পর্কে খুব ভালোভাবে জানতে পারেন তাহলে এই বিজনেসে আপনার সফলতা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি।

2. Design

মাইন্ড সেটাপ করার পর আপনাকে ডিজাইন ও মার্কেট নিয়ে রিসার্চ করতে হবে খুব ভালোভাবে। রিসার্চ করার অর আপনাকে ডিজাইন করতে হবে বা আপনি যদি ডিজাইন করতে না পারেন তাহলে কোন মার্কেটপ্লেস থেকে ডিজাইনার কে দিয়ে আপনার আইডিয়া/নিশ অনুযায়ী ডিজাইন করিয়ে নিতে হবে।

মনে রাখবেন মানুষ আপনার প্রোডাক্ট কিনবে ডিজাইন দেখে তাই এখানে আপনাকে সবচেয়ে বেশি পরিশ্রম করতে হবে। ডিজাইন যদি ভাল বা ইউনিক না হয় তাহলে আপনি যতই মার্কেটিং করেন না কেন কখনোই আশানুরূপ ফল পাবেন না বা এই বিজনেসে টিকে থাকতে পারবেন না।

3. Partner

এর পর আপনাকে POD পার্টনার সিলেক্ট করতে হবে যাদের মাধ্যমে আপনি আপনার ডিজাইনগুলো সেল করতে পারবেন। বর্তমানে প্রচুর পরিমান Print On Demand মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে খুব সহজেই একটি স্টোর ক্রিয়েট করে আপনার ডিজাইন বিভিন্ন প্রোডাক্টের উপর মকআপ করে সেল করতে পারবেন। যেমনঃ ShineOn, ViralStyle, Teespring, Moteefe, Redbubble, Teezily, Spreadshirt, Teepublic, Zazzle, Sunfrog etc.

আবার কিছু কিছু কোম্পানি রয়েছে যাদের সাথে আপনার ই-কমার্স সাইট ইন্টিগ্রেট করে নিজস্ব ব্র্যান্ড এর আন্ডারে প্রোডাক্ট সেল করতে পারবেন। যেমনঃ Printful, Printify, CustomCat, SPOD, Teelaunch, Apliiq Dropship etc.

আপনার ডিজাইন আপনি চাইলে সব মার্কেটপ্লেসেই সেল করতে পারবেন। তবে প্রাথমিক অবস্থায় যেকোন একটি মার্কেটপ্লেসকে টার্গেট করে আগানোই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। কোন মার্কেটপ্লেস এ কাজ শুরু করবেন, কোন মার্কেটপ্লেস আপনার জন্য পারফেক্ট হবে তার জন্য আপনাকে প্রচুর পরিমাণ রিসার্চ করতে হবে এবং অভিজ্ঞদের পরামর্শ নিতে হবে।

4.Traffic

ধরলাম আপনি উপরের সবগুলো ধাপ কমপ্লিট করে ফেলেছেন ও একটি স্টোর ক্রিয়েট করে প্রোডাক্টও আপলোড দিয়ে ফেলেছেন। এখন তো আপনাকে প্রোডাক্টগুলো সেল করতে হবে এবং সেল করার জন্য কাস্টমারও লাগবে তাই না? তো কীভাবে আপনি সেল জেনারেট করতে পারেন বা কাস্টমার খুজে পেতে পারেন তা নিয়ে এখন মোটামুটি একটা ধারণা দেয়ার চেষ্টা করব ইন-শা-আল্লাহ্‌।

সেল বাড়ানোর জন্য আপনার স্টোরে প্রচুর পরিমানে ট্রাফিক/ভিজিটর নিয়ে আসতে হবে। অনেকগুলো ওয়ের মাধ্যমে আপনি ট্রাফিক বাড়াতে পারেনঃ-

১। Facebook হচ্ছে বর্তমানে সবচেয়ে বড় ট্রাফিক সোর্স এখানে আপনি ফ্রি ও পেইড মার্কেটিং করে আপনার স্টোরে প্রচুর পরিমানে ভিজিটর নিয়ে আসতে পারেন খুব সহজেই।

২। নিশ রিলেটেড Blog ক্রিয়েট করে ভালোমত SEO করতে পারলে সেখান থেকেও প্রচুর পরিমানে ট্রাফিক আপনার স্টোরে নিয়ে আসতে পারবেন।

৩। Youtube, Instagram, Pinterest & Twitter এ মার্কেটিং করার মাধ্যমেও আপনি ট্রাফিক জেনারেট করতে পারবেন।

৪। Quora & Reddit প্ল্যাটফর্ম থেকেও আপনারা খুব ভাল পরিমাণ ট্র্যাফিক/ ভিজিটর ফ্রিতে আপনাদের স্টোরে নিয়ে আসতে পারেন।

এখানে শুধু কি কি ওয়েতে আপনি ট্রাফিক জেনারেট করতে পারবেন তা বলা হয়েছে কিন্তু আপনাকে প্রত্যেকটা ওয়ে সম্পর্কে অনেক ডিপ নলেজ গেদার করতে হবে এবং ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে হবে খুব ভালোভাবে।

5. Scaling

স্কেলিং POD বিজনেস এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি স্টেপ যার মাধ্যমে আপনারা সেল ২ থেকে ৩ গুন পর্যন্ত বাড়িয়ে ফেলতে পারেন।

কখন স্কেলিং করতে হবে? যখন আপনি দেখবেন একটা প্রোডাক্ট খুব ভাল সেল হচ্ছে তখন আপনাকে স্কেলিং করতে হবে মানে আপনার স্টোরে ট্রাফিক বাড়াতে হবে বিভিন্নভাবে। যেমনঃ এডভারটাইজিং বাজেট বাড়িয়ে দিয়ে, সিমিলার প্রোডাক্ট ক্রিয়েট করে, ডিফারেন্ট পিপল টার্গেটিং করে এবং ডিফারেন্ট মার্কেটিং স্ট্র্যাটেজি অ্যাপ্লাই করে।

আশা করি Print On Demand সম্পর্কে আপনারা মোটামুটি একটা ধারণা পেয়েছেন। আপনি যদি এই সেক্টরে কাজ শুরু করতে চান তাহলে উপরের ৫টি স্টেপ সম্পর্কে আপনাকে প্রচুর স্টাডি করতে হবে এবং যারা এই সেক্টরে কাজ করছে তাদের সহায়তা নিতে হবে। একটা কথা সবসময় মাথায় রাখবেন কোন কাজেই রাতারাতি সফলতে পাওয়া যায় না, এর জন্য আপনাকে কঠিন পরিশ্রম করতে হবে এবং সেই কাজে লেগে থাকতে হবে।

ধন্যবাদ

Leave a Reply